টাকা ইনকাম করার অ্যাপ । সেরা ১০ টি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত 

Salim Mahamud

টাকা ইনকাম করার অ্যাপ । সেরা ১০ টি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত 

আপনি কি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ এর খোজে আছেন? এমন একটি অ্যাপ খুজে বেড়াচ্ছেন যেখানে সহজ কিছু টাস্ক করার মাধ্যমে মোবাইলের সাহায্যে টাকা ইনকাম করতে পারা যায়? তবে আপনি একদম সঠিক স্থানেই রয়েছেন। কেননা এখানে আপনাকে Proper Guideline দেয়া হবে টাকা ইনকাম করার অ্যাপ থেকে আয় করার জন্য। চলুন শুরু করা যাক। 

সত্যিই কি অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা যায়?

বর্তমান সময়ে টাকা ইনকাম করা হয়ে গেছে অনেক সহজ একটি কাজ। আপনার আশেপাশেই এতো বেশি রিসোর্স রয়েছে যা ঠিক ভাবে এপ্লাই করতে জানলেই আপনি মাসে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আর সেসব রিসোর্সের মধ্যে একটি হলো অ্যাপস। টাকা ইনকাম করার অ্যাপ নামক অনেক ধরণের অ্যাপস রয়েছে, মুলত এই সকল অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা যায় ব্যাপারটা আসলেই সত্যি। যদিও এর মধ্যে এমন অনেক অ্যাপ রয়েছে যেগুলো Fake এবং কাজ করা শেষ হয়ে গেলে পেমেন্ট করে না। তবে নিশ্চিন্তে থাকুন কেননা, এই আর্টিকেলে যে কয়টি অ্যাপ সম্পর্কে জানতে পারবেন তার প্রতিটাই ট্রাস্টেড এবং অনেক সময় ধরে ইউজারদের পেমেন্ট করে আসছে।  

কিভাবে টাকা ইনকাম করার অ্যাপ থেকে আয় করবো? 

এমন অনেক অ্যাপ রয়েছে যেখানে খুব ব্যাসিক কিছু কাজ করলে তারা আপনাকে রিয়েট টাকা ইনকাম করার সুযোগ করে দেয়। তবে অবশ্যই এখানে একটা টুইস্ট রয়েছে। আর সেই টুইস্টটা হলো, তারা আপনাকে দিয়ে কিছু কাজ করিয়ে নিবে, যে কাজ গুলোও হয় খুব ব্যাসিক। আমরা এই পুরো আর্টিকেলটিতে এমন বেশ কিছু টাকা ইনকাম করার অ্যাপ সম্পর্কে জানবো, জানবো সেখানে কি কি কাজ করে টাকা ইনকাম করা যায়। পাশাপাশি থাকবে কিভাবে টাকা ইনকাম করার অ্যাপ থেকে আয় করবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত গাইডলাইন। 

টাকা ইনকাম করার অ্যাপ থেকে কত টাকা আয় করা যায়?

তবে যাই হোক, সকলের মত আপনার মাথায়ও এই পর্যায়ে একটি কমন প্রশ্ন ঘুড়পাক খাচ্ছে, যা হলো: “টাকা ইনকাম করার অ্যাপ থেকে কত টাকা আয় করতে পারবো?” আসলে এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেয়া কিছুটা জটিল। কেননা এখানে একেক ধরণের অ্যাপ এর একেক রকম পেমেন্ট ক্যাটালগ। কোনো অ্যাপ থেকে আপনি ডেইলি ৫০০ টাকা আয় করতে পারবেন আবার কোনো অ্যাপ থেকে আপনি ডেইলি ৫০ টাকা আয় করতে পারবেন।

আবার এটা অনেক অংশে নির্ভর করছে যে আপনি ঠিক কত সময় ব্যয় করছেন অ্যাপে কাজ করার ক্ষেত্রে। তবে যেহেতু আমরা মোট ১০ টি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ নিয়ে কথা বলবো, তাই চেষ্টা করবো প্রতিটা অ্যাপে পৃথক ভাবে কত টাকা আয় করতে পারবেন সে বিষয়ে একটি ধারণা দেয়ার। আর তার জন্য আপনাকে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। 

সেরা ১০ টি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত 

এই পর্যায়ে জানাবো একেক করে ১০ টি সেরা অ্যাপ সম্পর্কে যেখানে কাজ করে প্রকৃত পক্ষে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। উল্লেখ্য যে এখানে এমন কিছু অ্যাপ রয়েছে যেখান থেকে সরাসরি টাকা তো পাবেন না, তবে বিভিন্ন ভাউচার ও গিফট কার্ড পাবেন যা কোনো কিছু কেনাকাটা করার কাজে টাকার বিকল্প হিসেবে কাজ করবে। তাহলে আর কথা না বাড়িয়ে যেনে নেয়া যাক সেরা ১০ টি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ সম্পর্কে। 

Taskbucks 

প্লে স্টোর থেকে এখনো অবধি এক কোটি বারেরও বেশি ডাউনলোড হওয়া অ্যাপ এটি। বিভিন্ন সার্ভে কমপ্লিট করা, কুইজ ও গেম খেলা, ডেইলি পয়েন্ট অর্জন করা এবং বন্ধুদের রেফার করার মাধ্যমে এই অ্যাপটির মাধ্যমে পয়েন্ট আয় করতে পারবেন। প্রতিদিন সর্বোচ্চ ১০ হাজার কয়েন পর্যন্ত আয় করা সম্ভব। 

এখান থেকে আয় করা কয়েনগুলো দিয়ে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন, ব্যাংক ট্রান্সফারের মাধ্যমে টাকা উত্তোলোন,  টকটাইম কিংবা ডাটা রিচার্জ করতে পারবেন। তাছাড়া ডেইলি কন্টেক্সট এর মাধ্যমে এক্সট্রা কয়েন জেনারেট করা সম্ভব। এখান থেকে পাওয়া কয়েন দিয়ে পোস্টপেইড মোবাইল বিল পেমেন্ট করা যাবে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা প্রতি মাসে। তাছাড়া এখান থেকে ইনকাম করা টাকা আপনি Paytm, MobiKwik থেকেও নিতে পারবেন

Swagbucks App 

মূলত Swagbucks App হল একটি অনলাইন ক্রেডিট প্ল্যাটফর্ম যা ব্যবহারকারীদের অনলাইন শপিং, অনলাইন জরিপ পূরণ, ভিডিও দেখা এবং অন্যান্য কাজের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে দেয়। এই অর্থটি পরে PayPal, Amazon Gift Card বা অন্যান্য পুরস্কারে রূপান্তর করা যেতে পারে।

Swagbucks App এই প্রথমবার জয়েন হওয়ার পরেই আপনাকে ১০ ডলার Welcome Bonus দেওয়া হবে। গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপটি এখন অব্দি ৫ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে এবং অ্যাপটির রেটিং ৪.৬। বিভিন্ন সার্ভে কমপ্লিট করে এবং গেম খেলে আয় করার জন্য Swagbucks বেস্ট একটি App। 

মজার সব ক্যুইজ এবং সার্ভে কমপ্লিট করে আয় করার জন্য দুর্দান্ত জায়গা। Swagbucks অ্যাপ আপনাকে আপনার মতামত দেওয়ার জন্য অর্থ প্রদান করতে দেয়। বলা যায় আপনার ফোন দিয়ে রাস্তা ঘাটে যেতে যেতে বা বাড়িতে বসেই অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। 

পুরষ্কার পেতে এবং ফ্রিতে গিফট কার্ড পেতে পেইড সার্ভে গুলো সম্পূর্ণ করুন। প্রতিদিন শত শত নতুন সার্ভে যোগ করা হয় এখানে, যাতে আপনি সর্বদা আরও কিছুর জন্য চেক ইন করতে পারেন৷ রাজনীতি, চলচ্চিত্র, টিভি শো, এবং কেনাকাটার অভিজ্ঞতা সহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সার্ভে গুলো দেয়া হয়ে থাকে। 

এখানে আপনি প্রতিদিন 10,000 টিরও বেশি ফ্রি উপহার কার্ড রিডিম করতে দেখবেন! Amazon, Apple, Target, Mastercard, AmEx, Walmart, Starbucks, Uber, এবং আরও অনেক কিছুতে PayPal ক্যাশ বা গিফট কার্ডের জন্য আপনার Swagbucks রিওয়ার্ড রিডিম করুন। মাত্র $1 হলেই গিফট কার্ড ক্যাশ আউট করতে পারবেন। অন্যদিকে $250 হলে সরাসরি পেপ্যাল ​​ডিপোজিট করতে পারবেন।

InboxDollars App 

InboxDollars App থেকে আয় করার জন্য আপনাকে প্রথমে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে এবং একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর, আপনি নিম্নলিখিত উপায়ে আয় করতে পারবেন:

১) অনলাইনে সার্ভে পূরণ করে: InboxDollars-এর মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানির সার্ভে পূরণ করে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন। প্রতিটি সার্ভে পূরণের জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করা হবে।

২) ইমেল পড়ে: InboxDollars-এর মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানির ইমেল পড়ে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন। প্রতিটি ইমেল পড়ার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করা হবে।

৩) ভিডিও দেখে: InboxDollars-এর মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানির ভিডিও দেখে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন। প্রতিটি ভিডিও দেখার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করা হবে।

৪) অ্যাপ ডাউনলোড করে: InboxDollars-এর মাধ্যমে বিভিন্ন অ্যাপ ডাউনলোড করে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন। প্রতিটি অ্যাপ ডাউনলোডের জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করা হবে।

৫) অনলাইনে কেনাকাটা করে: InboxDollars-এর মাধ্যমে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কেনাকাটা করে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন। প্রতিটি কেনাকাটার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করা হবে।

আপনার ইনকাম $25 হলে আপনি পেমেন্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন। পেমেন্টের জন্য আপনি PayPal, Amazon Gift Card, বা চেকের মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন।

বাংলাদেশে ইনবক্সডলার অ্যাপ থেকে আয় করা সম্ভব। তবে, আপনি যদি পেমেন্টের জন্য PayPal বা Amazon Gift Card ব্যবহার করতে চান তবে আপনাকে একটি আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড বা ডেবিট কার্ড থাকতে হবে।

Cointiply

Cointiply অ্যাপ একটি  legitimate অ্যাপ। এই অ্যাপ থেকে আয় করা সম্পূর্ণরূপে নিরাপদ। এখন অব্দি গুগল প্লে স্টোরে অ্যাপটি ১ মিনিয়নেরও বেশি ইন্সটল করা হয়েছে। এখানে বিটকয়েন্ট ও অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করার জন্য মোট ২০ টির মত উপায় রয়েছে। এগুলোর মধ্যে হাইলাইটেড কিছু হলো:

  • ভিডিও দেখা: Cointiply অ্যাপ থেকে ভিডিও দেখার মাধ্যমে আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করতে পারেন। প্রতিটি ভিডিও দেখার জন্য আপনি 2 থেকে 10 টি ক্রিপ্টোকারেন্সি পেতে পারেন।
  • অ্যাপ ইনস্টল করা: Cointiply অ্যাপ থেকে বিভিন্ন অ্যাপ ইনস্টল করার মাধ্যমে আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করতে পারেন। প্রতিটি অ্যাপ ইনস্টলের জন্য আপনি 20 থেকে 50 টি ক্রিপ্টোকারেন্সি পেতে পারেন।
  • সার্ভে পূরণ করা: Cointiply অ্যাপ থেকে বিভিন্ন সার্ভে পূরণ করার মাধ্যমে আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করতে পারেন। প্রতিটি সার্ভে পূরণের জন্য আপনি 20 থেকে 50 টি ক্রিপ্টোকারেন্সি পেতে পারেন।
  • ইউটিউব ভিডিও দেখা: Cointiply অ্যাপ থেকে ইউটিউব ভিডিও দেখার মাধ্যমে আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করতে পারেন। প্রতিটি ভিডিও দেখার জন্য আপনি 1 থেকে 5 টি ক্রিপ্টোকারেন্সি পেতে পারেন।
  • অন্যান্য: Cointiply অ্যাপ থেকে অন্যান্য বিভিন্ন উপায়ে আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করতে পারেন। যেমন, গেমস খেলা, প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা, লিঙ্ক শেয়ার করা ইত্যাদি।

Cointiply অ্যাপ থেকে আয় করা ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলি হল BTC, ETH, LTC, DOGE, BNB, BCH, XRP, TRX, EOS, XLM ইত্যাদি। এবং অ্যাপ থেকে পেমেন্ট তোলার জন্য আপনার অ্যাকাউন্টে কমপক্ষে 50 টি ক্রিপ্টোকারেন্সি থাকতে হবে। এখান থেকে পেমেন্ট তোলার জন্য Paypal, Bitcoin Wallet, Ethereum Wallet ব্যবহার করতে পারবেন। 

Free Cash: Earn Crypto

ফ্রিক্যাশের মাধ্যমে আপনি বিটকয়েন, অ্যামাজন গিফট কার্ড এবং আরও অনেক কিছু আয় করতে পারেন শুধু সার্ভে কমপ্লিট করে আর গেম খেলে। সর্বোপরি, গড় ফ্রিক্যাশ ব্যবহারকারী শুধুমাত্র 17 মিনিট এবং 16 সেকেন্ড খেলার পরে একটি প্রথম কয়েন ক্যাশ আউট দিয়ে প্রতিদিন প্রায় $17.53 উপার্জন করতে পারে। আপনি যখন Freecash-এর জন্য সাইন আপ করেন তখন প্রাইজ প্লে এবং এপিক গেমের পুরষ্কার ঠিক কোণায় থাকে!

মাত্র ৬ টি ধাপেই আয় করুন এখান থেকে: 

1. Play Store থেকে Free Cash অ্যাপটি ডাউনলোড করুন।

2. অ্যাপটি খুলুন এবং আপনার প্রথম কাজ শুরু করুন।

3. খেলার জন্য গেমগুলির একটি তালিকা থেকে বাছাই করুন বা একটি পেইড সার্ভে বাছাই করে কমপ্লিট করুন। 

4. কাজ গুলি সম্পূর্ণ করুন এবং অর্থ উপার্জন শুরু করুন। কিছু ব্যবহারকারী প্রতিদিন $100-এর বেশি আয় করেন। 

5. একবার আপনি একটি কাজ শেষ করার পরে, অ্যাপ এর shop অপশনে গিয়ে পছন্দের রিওয়ার্ডটি বেছে নিন।

6. পেপ্যাল, বিটকয়েন, উপহার কার্ড এবং আরও অনেক কিছু দিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ক্যাশ আউট করুন!

এখানে ঠিক যে যে কাজ গুলো করতে পারবেন আয় করার জন্য 

  • Surveys: এই ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ধরনের সার্ভে করে ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করা যায়। সার্ভেগুলি সাধারণত 5-10 মিনিট সময় নেয়।
  • Tasks: এই ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে ক্রিপ্টোকারেন্সি আয় করা যায়। কাজগুলির মধ্যে রয়েছে, ওয়েবসাইট ভিজিট করা, ভিডিও দেখা, অ্যাপ ইনস্টল করা ইত্যাদি।
  • Airdrops: এই ওয়েবসাইটে নতুন ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলির জন্য এয়ারড্রপ দেওয়া হয়। এয়ারড্রপ হল বিনামূল্যে ক্রিপ্টোকারেন্সি প্রদান করা।
  • Referrals: এই ওয়েবসাইটে আপনার রেফারেলের মাধ্যমে আয় করা যায়। আপনার রেফারেলরা যদি এই ওয়েবসাইটে কাজ করে, তাহলে আপনি তাদের আয়ের উপর কমিশন পাবেন।

পুরস্কার, উপহার কার্ড এবং ক্রিপ্টোকারেন্সি যেখানে ক্যাশআউট করবেন 

১) ক্রিপ্টো আয় করুন: বিটকয়েন এবং অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সি উত্তোলন করতে পারবেন মাত্র 10 সেন্ট হলেই।

২) প্লে স্টোরের উপহার কার্ড উপার্জন করুন এবং সহজেই আপনার অ্যাকাউন্ট লোড করুন। 

৩) পেপ্যাল ​​উপহার কার্ড: আপনার ব্যালেন্সকে টাকাতে রূপান্তর করার সুযোগ পাবেন। 

৪) AMAZON গিফট কার্ড: আপনার Amazon অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্সে আপনার উপহার কার্ড যোগ করতে পারবেন। 

Roz Dhan 

Roz Dhan অ্যাপে প্রথমবারের মতো সাইনআপ করলে পেয়ে যাচ্ছেন ২০ রুপি। এরপর ছোট খাটো কিছু টাস্ক পূরণ করার মাধ্যমে আরো পারছেন ৫০ টাকার মতো। একজন নতুন ইউজারের যখন ১০০ টাকা পূর্ণ হবে তখন পেটিএম এর মাধ্যমে সে টাকা উইড্র করতে পারবে যা আপনার অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে দুই কর্ম দিবসের মধ্যে। 

তাছাড়া এখানে রেফার করার মাধ্যমেও আয় করার ব্যবস্থা রয়েছে প্রতি রেফারে এখানে ১২ টাকা করে দেওয়া হয়। এখানে অনেক ধরনের কাজ রয়েছে যেগুলো করে আপনি বিভিন্নভাবে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যেমন: 

  • read articles, 
  • check daily horoscope, 
  • walking task, 
  • complete survey

আপনি যদি প্রতিদিন ১০ মিনিট করে এই অ্যাপটিতে সময় দেন তাহলে আপনি এই ধরনের কাজগুলো করে আয় করতে পারবেন অনায়াসে। শুধু কি তাই এছাড়াও রয়েছে আরও অন্যান্য কাজ যেমনঃ 

১) প্রতিদিন হাঁটার মাধ্যমেও আয় করার ব্যবস্থা রয়েছে আপনার প্রতিটি কদম কাউন্ট করা হবে এবং সেটাকে টাকাতে কনভার্ট করা হবে। তার মানে এখন হেটেও ক্যাশ রিওয়ার্ড পেতে পারেন। 

২) ভিজিট পপুলার সাইট: বিভিন্ন জনপ্রিয় সাইট সমূহ (যেমন – জব পোর্টাল, শপিং সাইট) এ ভিজিট করার জন্যও অ্যাপটি আপনাকে রিওয়ার্ড দিবে।  

আর পেমেন্ট উত্তোলন? তা খুবই সোজা, সারা ভারত জুরে Paytm এর মাধ্যমে যেকোনো সময় উইথড্র করতে পারবেন। তবে তা আপনাকে একাউন্টে যুক্ত হবে ২ কর্মদিবসের মধ্যেই। 

AppKarma 

এই অ্যাপের মাধ্যমে মাত্র তিন ডলার হলে পেপালের মাধ্যমে আপনার রিওয়ার্ড উত্তোলন করতে পারবেন নগদ টাকাতে।  বিভিন্ন প্রকার গেমস এবং  টাস্ক কমপ্লিট করার মাধ্যমে এখান থেকে ইনকাম করা যায়। ইনকাম করার অ্যাপস হিসেবে অ্যাপ কারমা  যথেষ্ট ভালো এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি। 

Google play store থেকে এখন অব্দি ৫ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে এই অ্যাপটি যেখানে রয়েছে অনেক বেশি রিওয়ার্ড অপরচুনিটি, গেমস খেলার মাধ্যমে স্ক্র্যাচ কার্ড জেতার সুযোগ, থাকছে, ডেইলি রিওয়ার্ড সহ আরো অনেক কিছু। 

Pocket Money App 

আনলিমিটেড ফ্রিতে মোবাইল রিচার্জ এবং নগদ টাকা আয় করতে পারবেন খুব সহজেই পকেট মানি অ্যাপস এর মাধ্যমে। এখন আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোনটি ব্যবহার করেই আপনার সকল প্রকার পরিশোধ করতে পারবেন বিনামূল্যে।  যার জন্য করতে হবে বেশ কিছু কাজ পকেট মানি অ্যাপ এর মধ্যে। একজন ইউজার প্রতিদিন সর্বোচ্চ ৭০০০ রুপি পর্যন্ত আয় করতে সক্ষম হয়ে থাকে পকেট মানি অ্যাপে। 

পকেট মানি অ্যাপ থেকে ঠিক যা করার মাধ্যমে রিওয়ার্ড পাওয়া যায় তা হল

১) পকেট মানি থেকে বিভিন্ন অ্যাপস ডাউনলোড করার জন্য রিওয়ার্ড দিয়ে থাকে

২) এখানে থাকছে ফিচারড অফারস, পপুলার অফার এবং উচ্চ আরনিং অফার

৩) থাকছে ভিডিও দেখার মাধ্যমে ও আয় করার সুযোগ

৪) পকেট মানি অ্যাপটিতে ঢাকা গেমস খেলার মাধ্যমেও এখান থেকে আয় করতে পারবেন

৫) সবচেয়ে দারুন ব্যাপার হলো পকেট মানি অ্যাপে একটা রেফারের জন্য ১৬০ রুপি দেওয়া হয়ে থাকে

কিভাবে পকেট মানি অ্যাপ থেকে আয় করবেন?

১) প্রতিদিন এক ভিজিট করুন এবং সেখানে নতুন কোন অফার রয়েছে কিনা সেটা চেক আউট করুন

২) প্রথমবার অ্যাপ রেজিস্টার করার পর ডেইলি বোনার্স অর্জন করুন

৩) বিভিন্ন ক্যাশব্যাক এবং ডিসকাউন্ট অফার গুলো চেক আউট করুন

৪) বেশি বেশি করে বন্ধুদের মাঝে একটি রেফার করুন

৫) প্রতি সপ্তাহে হওয়া কনটেক্সটে অংশগ্রহণ করে আরো বেশি প্রাইজ মানি জয়ী হন

৬) অ্যাপ এ থাকা প্রতিটি সার্ভে এবং মজাদার টাসগুলো পূরণ করার মাধ্যমে রিওয়ার্ড পান

এখান থেকে যে রিওয়ার্ডগুলো পাবেন তা দিয়ে আপনি – 

ক্যাব রাইডার্স সার্ভিস ফ্রিতে ইনজয় করতে পারবেন

 মুভি টিকিট ফ্রিতে বুকিং করতে পারবেন

 ফ্রি শপিং করতে পারবেন

 অনলাইনে খাবার অর্ডার করতে পারবেন

 বিভিন্ন মিউজিক এবং এপস ক্রয় করতে পারবেন

 ট্রেনের টিকিট বিনামূল্যে অনলাইনে বুক করতে পারবেন

তবে অবশ্যই এই কাজ গুলো করতে হবে অ্যাপ এর মাধ্যমেই। অ্যাপ কতৃক যে জিনিস দেখাবে সেগুলোই আপনি ক্রয় করতে পারবেন। তাছাড়া মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন নিম্ম লিখিত সিম কোম্পানির ক্ষেত্রে: 

  • Airtel , 
  • Aircel , 
  • Vodafone , 
  • Idea , 
  • BSNL , 
  • Reliance GSM , 
  • Tata Docomo , 
  • Uninor , 
  • Videocon Loop , 
  • Mobile & MTNL

Meesho App 

Meesho App থেকে ইনকাম করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি Reseller Account খুলতে হবে। আপনি Meesho App এর ওয়েবসাইট বা অ্যাপ থেকে Reseller Account খুলতে পারেন।

Reseller Account খুলতে হলে আপনাকে আপনার নাম, ইমেল ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করতে হবে। Reseller Account খুলতে কোন অর্থ প্রদানের প্রয়োজন হয় না।

Reseller Account খোলার পর, আপনি Meesho App থেকে পণ্যগুলি নির্বাচন করতে পারবেন এবং সেগুলি আপনার Social Media Platform-এ Promote করতে পারবেন। যখনই কেউ আপনার মাধ্যমে একটি পণ্য ক্রয় করবে, তখন আপনি সেই পণ্যের বিক্রয়মূল্যের উপর একটি কমিশন পাবেন।

Meesho App থেকে ইনকামের জন্য আপনার Social Media Platform-এর একটি ভাল Followers Base থাকা জরুরি। আপনি Facebook, Instagram, TikTok, বা অন্যান্য Social Media Platform-এ Meesho পণ্যগুলি Promote করতে পারেন।

Meesho App থেকে পেমেন্ট নেওয়ার জন্য আপনি Meesho App এর নিজস্ব পেমেন্ট প্রসেসিং পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন। Meesho App এর পেমেন্ট প্রসেসিং পদ্ধতি হল Paytm, Google Pay, এবং PhonePe। আপনি এই পেমেন্ট প্রসেসিং পদ্ধতিগুলির মাধ্যমে আপনার ইনকাম সরাসরি আপনার Bank Account-এ পাঠাতে পারবেন।

কেনো আপনি এই অ্যাপটি বেছে নিবেন? কারণ:

১) এখানের সকল পণ্যের মান খুবই ভালো এবং উন্নত মানের 

২) সকল পণ্য ক্রেতার কাছে পোছে নিতে কোনো প্রকার ডেলিভারি চার্জ গ্রহন করে না। 

৩) ক্যাশ অন ডেলিভারি সার্ভিস এভেইলেবল আছে। 

৪) পণ্য কোনো সমস্যা পাওয়া গেলে ফ্রী রিটার্ন পলিসি রয়েছে। 

৫) পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে ১০০% সুরক্ষা নিশ্চায়ন করছে। 

Earn Talktime

অ্যাপটির দাবী যে, আপনি অবশ্যই Earn TalkTime পছন্দ করবেন কেননা, এখানে আপনি সহজ কিছু টাস্ক করে সেটার উপর পেমেন্ট পাবেন। তাছাড়া বন্ধুদের রেফার করার মাধ্যমেই এখান থেকে আয় করার সুযোগ রয়েছে। এখানে আপনি ডেইলি ২৫০ রুপির মত আয় করতে পারবেন অনায়াসে। 

অ্যাপটির ফিচার্স সম্পর্কে যদি বলি, তাহলে এখানে পাচ্ছেন – 

১) ইন্সট্যান্ট মোবাইল রিচার্স

২) গুগল প্লে রিডিম কোড 

৩) রিচার্জ প্ল্যান

৪) রেফারেল সিস্টেম 

তাছাড়া এখানে আয় করা পয়েন্টের মাধ্যমে প্রতি মাসে ১০০০ রুপি অব্দি মোবাইলে পোস্টপেইড সিমেও রিচার্জ করাতে পারবেন। মোট কথা হলো আপনার যদি এমন একটি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ দরকার যেখানে আপনি অনায়াসে নিজের মোবাইলের সকল খরচ উঠাতে চান সহজ কিছু কাজ করার বিনিময়ে তাহলে এই অ্যাপটি আপনার জন্য পার্ফেক্ট।  

পরিশেষে কিছু কথা 

এতো সময় অব্দি জানলেন ১০ টি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ সম্পর্কে। আশা করি এখানে থেকে একটি কিংবা একাধিক অ্যাপ আপনার ভালো লেগেছে, আর এখান থেকে আয় করার জন্য ভাবছেন। মূলত অ্যাপ থেকে আয় করা যায় ঠিক তবে এখান থেকে যে পরিমাণের অর্থ আয় করা যাবে সেটা অবশ্যই ব্যাসিক এবং হাতখরচের জন্য পার্ফেক্ট। কখনই এমন কাজকে প্রোফশনালি নেয়া উচিৎ হবে না। আপনি যদি প্রোফেশনাল উপায়ে আয় করতে চান তবে আমাদের ওয়েবসাইটে থাকা Earning Ways ক্যাটাগরিটি দেখতে পারেন। 

Leave a Comment